1. fauzursabit135@gmail.com : S Sabit : S Sabit
  2. sizulislam7@gmail.com : sizul islam : sizul islam
  3. mridha841@gmail.com : Sohel Khan : Sohel Khan
  4. multicare.net@gmail.com : অদেখা বিশ্ব :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১০:৩৩ অপরাহ্ন

ডেঙ্গু রোগীদের অন্ত্রের সমস্যা বাড়তে শুরু করেছে

অদেখা বিশ্ব ডেস্ক
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০২৩
ডেঙ্গু রোগীদের নানা উপসর্গের মধ্যে অন্ত্রের সমস্যা বাড়তে শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা বলছেন, বর্তমানে ডেঙ্গু রোগীদের হৃৎপিণ্ড, মস্তিষ্ক ও অগ্ন্যাশয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গে সমস্যা দেখা যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে গত এক দিনে ডেঙ্গুতে আটজনের মৃত্যু ও দুই হাজার ১৬৮ জন রোগীর হাসপাতালে ভর্তির তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সহযোগী অধ্যাপক ডা. ফজলে রাব্বী চৌধুরী বলেন, আগে ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে জ্বর ও গায়ে ব্যথা হতো। কিছু ক্ষেত্রে রক্তক্ষরণের প্রবণতা থাকত। ২০১৯ সালের পর থেকে অন্ত্রের সমস্যা বাড়তে শুরু করেছে। চলতি বছর অনেক ডেঙ্গু রোগীর ডায়রিয়া ও বমি হচ্ছে। কেউ কেউ শ্বাসতন্ত্রের সমস্যা ও কাশি নিয়েও আসছে। এই সংখ্যা অনেক বেশি। আগে সেটা ছিল না। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসাব্যবস্থা খুব বেশি পরিবর্তন হয়নি।

তিনি বলেন, এক্সপান্ডেড ডেঙ্গু সিনড্রোম বলে একটা গ্রুপ আছে, যাদের ক্ষেত্রে অঙ্গ বেশি আক্রান্ত হচ্ছে; যেমন—হার্ট, ব্রেন, অগ্ন্যাশয়ে সমস্যা হচ্ছে। এসব রোগী বেশি পাওয়া যাচ্ছে। এ জন্য চিকিৎসকদেরও খেয়াল রাখতে হবে, ডেঙ্গু রোগী যে শুধু জ্বর নিয়ে আসবে তা নয়। হঠাৎ অনেক বেশি বমি, ডায়রিয়া নিয়েও আসতে পারে।

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের (বিসিএসআইআর) চেয়ারম্যান মো. আফতাব আলী শেখ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ডেঙ্গু ভাইরাসের চারটি ধরন : ডেন-১, ডেন-২, ডেন-৩ ও ডেন-৪। চলতি বছর জিনোম সিকোয়েন্স করে আমরা দেখেছি, ডেন-৩, ডেন-৪ বেশি।

আবার ডেন-২-এর রোগীও আছে। অর্থাৎ ডেঙ্গুর একাধিক সেরোটাইপ পাওয়া যাচ্ছে। যারা আগে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছিল, তারা নতুন একটা ধরন দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছে। এতে এক ধরনের কম্পাউন্ড তৈরি হচ্ছে। অর্থাৎ রোগীর শরীর থেকে রক্তরস বের হয়ে পেটে জমা হচ্ছে। তখন পেট ফুলে যাচ্ছে। ফুসফুসে জমা হয়ে শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। অনেকের প্রেশার কমে যাচ্ছে। হৃৎপিণ্ডে সমস্যা হচ্ছে, দাঁতের গোড়া থেকে রক্ত বের হয়ে আসছে।

তিনি বলেন, এসব লক্ষণ হলো ডেঙ্গুর বিপদচিহ্ন। যদি কোনো রোগীর কোমরবিডিটি (পুরনো রোগ) থাকে, প্রসূতি মায়ের ক্ষেত্রে এ সমস্যা একটু জটিলতা তৈরি করছে। এ জন্য তাদের বিষয়ে আগে থেকে সতর্ক থাকা উচিত। একই সঙ্গে এ ধরনের কোনো লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত হাসপাতালে এসে চিকিৎসা নিতে হবে।

এক দিনে মৃত্যু ৮, ভর্তি ২১৬৮

দেশে গত এক দিনে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আরো আটজন মারা গেছে। এর মধ্যে ঢাকায় তিনজন, ঢাকার বাইরে পাঁচজন। এ নিয়ে চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৪৯৩ জনের মৃত্যু হলো। চলতি আগস্ট মাসেই মারা গেছে ২৪২ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে আরো দুই হাজার ১৬৮ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে এক হাজার ৩২৬ জন ঢাকার বাইরে। এ নিয়ে চলতি বছর এ পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক লাখ চার হাজার ৩৫৯। চলতি আগস্টে ৫২ হাজার ৪২৭ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে, যা মোট রোগীর অর্ধেকের বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, বর্তমানে সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে সাত হাজার ৯২৯ জন রোগী চিকিৎসাধীন। এর মধ্যে ঢাকায় তিন হাজার ৫৭০ জন ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন জেলায় চার হাজার ২৫৯ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

Theme Customized BY LatestNews